1. admin@naldangabatra.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

বাগমারায় যোগাযোগ খাতের বিপ্লব,যা দেখলে চোখ জুড়িয়ে যায়

নলডাঙ্গা বার্তা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২ মে, ২০২৩
বর্তমান সরকারের সময়ে যোগাযোগ খাতে যে বিপ্লব ঘটেছে তা চোখে পড়ার মতো। উপজেলা সদরের সাথে সেতু বন্ধন সৃষ্টি হয়েছে প্রতিটি ইউনিয়নের। সেই সাথে ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে প্রত্যন্ত গ্রামের রাস্তাঘাট। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল নাজুক। পিছিয়ে পড়েছিল বাগমারা। ছিল অবহেলিত এক পশ্চাদমুখ জনপদ।
১৬৪ বার পঠিত

বাগমারায় যোগাযোগ খাতের বিপ্লব,যা দেখলে চোখ জুড়িয়ে যায়

মো: জাহাঙ্গীর আলম, স্টাফ রিপোর্টারঃ

বর্তমান সরকারের সময়ে যোগাযোগ খাতে যে বিপ্লব ঘটেছে তা চোখে পড়ার মতো। উপজেলা সদরের সাথে সেতু বন্ধন সৃষ্টি হয়েছে প্রতিটি ইউনিয়নের। সেই সাথে ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে প্রত্যন্ত গ্রামের রাস্তাঘাট। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল নাজুক। পিছিয়ে পড়েছিল বাগমারা। ছিল অবহেলিত এক পশ্চাদমুখ জনপদ।

যোগাযোগ ব্যবস্থায় পিছিয়ে থাকা বাগমারা এখন অনেক অগ্রসর। শহরের সাথে তুলনা করে তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন রাস্ত-ঘাট। সেই সাথে পুরাতন কিছু রাস্তা সংস্কার, নতুন করে রাস্তা পাকাকরণ, ব্রীজ কালভার্ট নির্মাণ হওয়ার ফলে উন্মোচিত হয়েছে সহজ যোগাযোগের দ্বার। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের কারণে মানুষের জীবন যাত্রার মানও বেড়েছে। নেই আগের মতো জন দুর্ভোগ।

এ সময়ে উপজেলার প্রায় ৪৫০ কিলোমিটার নতুন রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। সংস্কার করা হয়েছে আরো রাস্তা। বর্তমান সরকারের আমলে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধিনে মোট ৪২৭ মিটার দৈর্ঘ্য নতুন ৮টি ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তরের তত্ত্বাবধানে আরো ৭টি ব্রীজ নির্মাণ করা হয়েছে। দামনাশ-ফতেপুর ভায়া সোনাডাঙ্গা সড়কে, পাহাড়পুর-হুলিখালী রাস্তায়, রায়নগর-শুটকিগাছা, তালতলি-যাত্রাগাছি সড়কে, মন্দিয়াল-বান্দাইখাড়া সড়কে, পীরগঞ্জ-বীরকয়া ফকিন্নী নদীর উপর, ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া সড়কে ও গোড়সার-জোলাপাড়া সড়কে নির্মাণ করা হয়েছে নতুন সাতটি ব্রীজ। পাশাপাশি ভবানীগঞ্জ ফকিন্নী নদীর উপরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে একটি নতুন সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। যার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময়ে আরো ২২ মিটার দৈর্ঘ্য আরো পাঁচটি কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে। পাহাড়পুর থেকে হুলীখালি, দামনাশহাট-ফতেপুর, মচমইল-খালগ্রাম, মচমইল-মোহনগঞ্জ, তাহেরপু-শ্রীপুর সড়কটি পাকাকরণের দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। এগুলো সাংসদের নির্বাচনী অঙ্গিকারও ছিল। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর এসব সড়কের কাজ করেছেন।

এছাড়াও তিনি, মচমইল থেকে হাট গাঙ্গোপাড়া, সাঁকোয়া থেকে মধ্যঝিনা, তালতলী থেকে মাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ, যাত্রাগাছি থেকে বড়বিহানালী ইউনিয়ন পরিষদ, শ্রীপুর থেকে মোহনগঞ্জ, তাহেরপুর থেকে শ্রীপুর, গোবিন্দপাড়া থেকে হুলিখালী, খদ্দোকৌড় থেকে শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ, মাড়িয়া থেকে বানইল, নারায়নপুর থেকে বটতলীহাট, বাইগাছা থেকে নরদাশ ইউনিয়ন পরিষদ রাস্তা, মাড়িয়া থেকে হাতরুম, মাথা ভাঙ্গা থেকে দয়েরঘাট, গোপালপুর থেকে আচিনঘাট, বাড়ীগ্রাম থেকে কাইনস্বর, নামাজগ্রাম থেকে মুগাইপাড়া পর্যন্ত পাকাকরণ হয়েছে। এছাড়াও সোনাডাঙ্গা থেকে শিমলা ভায়া ভরট্ট, খর্দ্দকৌর থেকে শুভডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ, সাইপাড়া থেকে হাটমাধনগর। এ সময়ে কাচারীকোয়ালপিাড়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পীরগঞ্জ বাজার, বড়বিহানালী হতে হরিণমারা, বাঁধেরহাট থেকে ফতেপুর, শেরকোল থেকে শিমলা পাকাকরণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে যে সকল রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে ভবানীগঞ্জ থেকে পুঁঠিয়া, ভবানীগঞ্জ থেকে বীরকুৎসা, মচমইল থেকে হাট-গাঙ্গোপাড়া, হাট-গাঙ্গোপাড়া থেকে গোবিন্দপাড়া, ভটখালী থেকে ঝিকরা, ভবানীগঞ্জ থেকে বান্দাইখাড়া। অপরদিকে ভাগনদী থেকে আহসানগঞ্জ, মচমইল থেকে মোহনগঞ্জ এবং ভবানীগঞ্জ থেকে ঝিকরা রাস্তা পাকাকরন করা হয়েছে।
এছাড়াও উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের মাধ্যেমে উপজেলার ৭০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মান করা হয়েছে। নির্মানাধীন ভবন সমূহ চাঁনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাঁকোয়া, দেওপাড়া বিলমাললী, বীরকয়া ত্রিমোহনী, রুহিয়া মাহমুদপুর, সমষপুর এবং চাইসারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, হরিণমারা, মহব্বতপুর এবং বারুইপাড়া, বাজোকোলা,রনশীবাড়ী,ঝিকরা, সাঁকোয়া শিকদারী, মাধাইমুড়ি, হায়াতপুর, ধামিনকৌড়, দক্ষিণ জামালপুর, গঙ্গানারায়নপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়াও চলমান রয়েছে ভবানীগঞ্জ মডেল, মচমইল, বুজরুক কোলা, বাগমারা সহ বেশ কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মাণ কাজ। বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ নির্মাণ ও সংস্কার করেছে ২০ কিলোমিটার রাস্তা।

উপজেলার অবহেলিত কাচারী কোয়ালীপাড়া ইউনিয়নে কোন পাকা রাস্তা না থাকলে এ সরকারের আমলে সেখানে রাস্তা করা সম্ভব হয়েছে। ভবানীগঞ্জ-মোহনপুর সড়কের পাকাকরণের কাজ শেষ হয়েছে এ সরকারের সময়ে। সড়কটি ছিল এলাকাবাসীর প্রাণের দাবি। এর ফলে ইউনিয়নবাসীর উপজেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগের পথ সহজ হয়েছে। সাংসদ এনামুল হকের প্রচেষ্টায় পাকাকরণ করা হয়েছে বাগমারার প্রায় সাড়ে ৪০০ কিলোমিটার রাস্তা। বর্তমানে সংস্কার প্রক্রিয়ায় রয়েছে ৪৫ কিলোমিটার রাস্তা। হেরিং বন্ড রাস্তা করা হয়েছে ২৫ কিলোমিটার।

অন্যদিকে হয়েছে আরডিআরআইডিপি প্রকল্পের আওতায় ১০ কিলোমিটার, বৃহত্তর রাজশাহী প্রকল্পে ৩ কিলোমিটার এবং আইআরআইডিপি- প্রকল্পের আওতায় ১৪ কিলোমিটার। এটি ব্যয় হয়েছে ৪২ কোটি টাকা। ফ্লাড আমফান প্রকল্পে সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ কিলোমিটার, ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়েছে ২৬ কিলোমিটার এবং গত বছর ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে মেরামত করা হয়েছে ৭০ কিলোমিটার। ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৫ টির প্রাচীণ নির্মাণ ও একটি স্টাফ রুম নির্মাণ কাজ শুরু হবে। আরো রাস্তা নির্মাণ ও সংস্কারের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
তালঘাট ব্রীজ, মাধনগর ব্রীজ, উত্তর একডালা ব্রীজ, জোলাপাড়া ব্রীজ, রায়নগর ব্রীজ, চাইসাড়া ব্রীজ, খালগ্রাম ব্রিজ, নিচু কাতিলা ব্রীজ, ঝিকরা-কয়ড়া বাড়ি ব্রীজ পাহাড়পুরে ব্রীজ নির্মাণের যে দাবি ছিল তা পূরণ করেছেন সাংসদ। ১৬ টি ইউনিয়নের মধ্যে ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে অত্যাধুনিক কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হয়েছে।
এছাড়াও ২টি ইউনিয়ন পরিষদের ভবন নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বাগমারায় নির্মাণ করা হয়েছে আধুনিক খাদ্যগুদাম, সার্ভার ষ্টেশন, ঝিকড়ায় ঠাকুরঝিতে আবাসন প্রকল্প, ৭০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। সেই সাথে ৭টি কলেজ, ৪২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং ৬ টি মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনার ও ডাকবাংলো নির্মাণ সহ সামাজিক অবকাঠামো উন

Facebook Comments Box

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ ©  নলডাঙ্গা বার্তা

 
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park