1. admin@naldangabatra.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন

জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষ গর্ভবতীর বাচ্চা নষ্ট.!

নলডাঙ্গা বার্তা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ জুলাই, ২০২৩
গাইবান্ধা সদর থানার ৪নং সাহাপাড়া ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামে জমা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে গর্ভবতী নারী সহ ৫ জন আহত। গর্ভবতী নারীর ৫ মাসের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট। থানায় এজাহার দাখিল।
৩২৪ বার পঠিত

জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষ গর্ভবতীর বাচ্চা নষ্ট.!

আমিরুল ইসলাম কবির, স্টাফ রিপোর্টারঃ

 

গাইবান্ধা সদর থানার ৪নং সাহাপাড়া ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামে জমা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে গর্ভবতী নারী সহ ৫ জন আহত। গর্ভবতী নারীর ৫ মাসের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট। থানায় এজাহার দাখিল।

দাখিল কৃত এজাহার সূত্রে ও সরেজমিনে প্রকাশ,দৌলতপুর গ্রামের মৃত চান মিয়ার ছেলে দরিদ্র রিকশা চালক মুকুল মিয়া (৪০) এর সাথে ভাগি শরিক মৃত গফুর মিয়ার ছেলে জায়দাল হক তার ছেলে হিরু ও ফিরোজ গং-দের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমা জমির বিরোধ চলছিল।

আর এরই ধারাবাহিকতায় গত রবিবার ৯ জুলাই সন্ধয়া ৭টার দিকে নিজ বাড়ির উঠানে (খুলিতে) বসে ছিলো মুকুল মিয়া। আর এ সময় কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই অতর্কিত হামলা করে জায়দাল মিয়া,তার ছেলে হিরু মিয়া ও ফিরোজ কবির সহ ১৫/২০ জনের একদল ভাড়াটিয়া লোকজন। আর এ হামলায় গুরুতর আহত হয় মৃত চান মিয়ার ছেলে মুকুল (৪০),তার বড় ভাই আনিছ মিয়া (৪৫),ফিরোজা বেগম (৫২) ও ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা মনিরা বেগম (৩২)। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে এবং গুরুতর আহত মুকুল (৪০)’কে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর ৪ মাসের গর্ভবতী মনিরা বেগম (৩৩) এর প্রতিপক্ষের মারপিট ও লাথির আঘাতে গর্ভের বাচ্চা নষ্ট হয়েছে বলে জানান তারা।

উল্লেখিত প্রতিপক্ষ হিরু ও ফিরোজ গং-দের মারপিটে আহত হয়েছেন বলে আহতরা গণমাধ্যম কর্মীদের জানান। তবে অভিযুক্তদের মন্তব্য নিতে তাদের বাড়িতে যেয়েও দেখা না পাওয়ায় বক্তব্য/মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে আহত আনিছ মিয়া সরকার বাদী হয়ে গাইবান্ধা সদর থানায় একখানা এজাহার দাখিল করেছেন।

Facebook Comments Box

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ ©  নলডাঙ্গা বার্তা

 
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park