1. admin@naldangabatra.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নড়াইলে ২৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার, গ্রেফতার-১ নিখোঁজের দুই দিন পর পুকুরে শিশু হাবিবার মরদেহ উদ্ধার। দুর্গাপুর থানার পুলিশ সদস্য ফিরোজকে ছুরি আঘাত করে গুরুতর জখম করেন সেলিম নামের যুবক..? চাটমোহর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম আর নেই! বড়াইগ্রামে কৃষি প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন। পাবনায় সড়ক দুর্ঘটনায় কুত্তা গাড়ির হেলপার নিহত! পাবিপ্রবিতে শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে  কর্মকর্তাদের ধস্তাধস্তি। গাইবান্ধায় বিস্ময়কর ৪০ যন্ত্রের আবিষ্কারক মানবিকের ছাত্র শাহীন। লালপুরে দুই ব্যবসায়ীকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা। বড়াইগ্রামে সরকারি খরচে আইনি সেবা বিষয়ক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত

সৌদিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৪ জনের বাড়ি বাগমারা’য়: ও তাদের বাড়িতে শোকের ছায়া! 

নলডাঙ্গা বার্তা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৫ জুলাই, ২০২৩
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড় মাধাইমুরি গ্রামের ফিরোজ আলী সরদার তিন বছর আগে সৌদি আরবে যান। এখানে তার মা, স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। সেখানেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছালে নেমে আসে শোকের ছায়া। সৌদি আরবের মদিনার আল খলিল এলাকার একটি সোফা কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে চারজনই রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বাসিন্দা। তাদের মধ্যে তিনজনই উপজেলার বরাইপাড়া গ্রামের।
৩৪৮ বার পঠিত

সৌদিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৪ জনের বাড়ি বাগমারা’য়: ও তাদের বাড়িতে শোকের ছায়া! 

মো: জাহাঙ্গীর আলম, স্টাফ রিপোর্টারঃ

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড় মাধাইমুরি গ্রামের ফিরোজ আলী সরদার তিন বছর আগে সৌদি আরবে যান। এখানে তার মা, স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। সেখানেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছালে নেমে আসে শোকের ছায়া। সৌদি আরবের মদিনার আল খলিল এলাকার একটি সোফা কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে চারজনই রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বাসিন্দা। তাদের মধ্যে তিনজনই উপজেলার বরাইপাড়া গ্রামের।

নিহতরা হলেন, বারইপাড়া গ্রামের জফির উদ্দিনের ছেলে রুবেল হোসাইন (পাসপোর্ট নম্বর : বিসি ০২৩৭০৫৫), জমিরের ছেলে মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম (পাসপোর্ট নম্বর : এই ৬৩২৬৮৪১), শাহাদাত হোসাইনের ছেলে আরিফ (ইকামা নম্বর : ২৫৩৫১৭৬৩৩৯) ও বড় মাধাইমুরি এলাকার আনিসুর রহমানের ছেলে ফিরোজ আলী সরদার (পাসপোর্ট নম্বর : ইই ০৫৮১২৭৪)। তারা কেউ ৬ মাস আগে, কেউ আট বছর আগে সৌদিতে গেছিলেন। মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর তাদের বাড়িতে বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড় মাধাইমুরি গ্রামের ফিরোজ আলী সরদার তিন বছর আগে সৌদি আরবে যান। এখানে তার মা, স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। সংসারে স্বচ্ছলতা ফেরাতে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। সেখানেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছালে নেমে আসে শোকের ছায়া। সৌদি আরবের মদিনার আল খলিল এলাকার একটি সোফা কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে চারজনই রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বাসিন্দা। তাদের মধ্যে তিনজনই উপজেলার বরাইপাড়া গ্রামের।

শনিবার নিহত ফিরোজের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় সেখানে চলছে স্বজন ও প্রতিবেশীদের শোকের মাতম। সবাই বাকরুদ্ধ। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। তারা ঘটনার শোনার পর থেকে কাঁদছেন। আরিফের বাবা শাহাদাত হোসাইন বলেন, সর্বশেষ বৃহস্পতিবার তার ছেলের সঙ্গে কথা হয়েছে। ভালো আছে বলে জানিয়েছিলেন। তিনি জানান, ৬ মাস আগে তার ছেলে সৌদিতে গিয়েছিল। তিনি ছেলের লাশ ফেরৎ চান। তিনি তার ছেলের লাশ নিজ এলাকায় দাফন করতে চান।

নিহত রুবেল হোসাইনের বাবা জফির উদ্দিন ছেলেকে হারিয়ে অস্বাভাবিক হয়ে গেছেন। এ দুর্ঘটনা মানতেই পারছেন না। তিনি বলেন, শুক্রবার ঘটনার পরপরই তারা মৃত্যুর খবর পেয়েছিলেন। তবে নিশ্চিত হতে পারেননি। শনিবার সকালে সেখানে থেকে ফোন করে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।সাজেদুল ইসলাম আট বছর ধরে সৌদি আরবে আছেন। তিনিও মারা গেছেন। তারা এক সঙ্গে থাকতেন। এদের হাত ধরে একই কোম্পানিতে চাকরি নিয়েছিলেন একই গ্রামের শাহাদত হোসাইনের ছেলে আরিফ। ৬ মাস আগে তিনি সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছিলেন। এর মধ্যে লাশ হলেন তিনি। উপজেলার যোগিপাড়া ইউনিয়নের বড় মাধাইমুড়ি গ্রামের ফিরোজ আলী সরদার (৩৯) তিন বছর আগে গিয়েছিলেন সৌদি আরবে। বাবা আনিছার রহমান বলেন, ছেলে কিছু টাকা জমিয়ে এবং বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে সৌদি আরবে গিয়েছিলেন। এদিকে ঘটনার পর জেলা প্রশাসন থেকে তাদের খোঁজ খবর নেওয়া হয়েছে।

লরাজশাহী জেলা প্রশাসকের হয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমন চৌধুরী শনিবার নিহতদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। তারা বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেছেন। সহকারী কমিশনার সুমন চৌধুরী জানান, সরকারিভাবে তাদের পরিবারের সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে। এ বিষয়ে তাদের কাগজপত্র সংগ্রহ করা হয়েছে।

Facebook Comments Box

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ ©  নলডাঙ্গা বার্তা

 
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park