1. admin@naldangabatra.com : admin :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০২:২০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নলডাঙ্গায় বিপ্রবেলঘড়িয়া ইউনিয়নে উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা।  শপথ নিলেন রংপুর বিভাগের ১৯ উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানগণ। রাজশাহী বিভাগে ২৩ উপজেলায় শপথ নিলেন চেয়ারম্যানরা। নলডাঙ্গার খাজুরা ইউনিয়নে উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা।  পাবনা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর স্ত্রী ও সমর্থকদের ওপর হামলা। জেলা শিল্পকলা একাডেমি নওগাঁতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৫২র প্রেক্ষাপটে নাটক ‘রাজমিস্ত্রি’ নরসিংদীর রায়পুরায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পিটিয়ে হত্যা। চাটমোহরে দুলাল,ভাঙ্গুড়ায় রাসেল ও ফরিদপুরে খলিলুর রহমান চেয়ারম্যান বিজয়ী । পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন রাসেল । পাবনায় তেলবাহী লরির চাপায় নিহত ২

বাগমারা’য় বিয়ের ৩ দিনের মাথায় স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন : আটক স্ত্রী

নলডাঙ্গা বার্তা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৯ আগস্ট, ২০২৩
রাজশাহীর বাগমারায় বিয়ের তিন দিনের মাথায় আব্দুর রাজ্জাক (৩১) নামের এক তরুণকে তার স্ত্রী বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মামলার পরে শাপলা খাতুন (১৮) নামের ওই নববধূকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
৩৫৭ বার পঠিত

বাগমারা’য় বিয়ের ৩ দিনের মাথায় স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন : আটক স্ত্রী।

মো: জাহাঙ্গীর আলম, রাজশাহী প্রতিনিধি:

 

রাজশাহীর বাগমারায় বিয়ের তিন দিনের মাথায় আব্দুর রাজ্জাক (৩১) নামের এক তরুণকে তার স্ত্রী বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মামলার পরে শাপলা খাতুন (১৮) নামের ওই নববধূকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৮ আগস্ট) উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের সাঁইপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার মোহনপুর উপজেলার ধুরুল ইউনিয়নের মো. শুকুরদির ছোট মেয়ে শাপলা খাতুন ও সাঁইপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের তিন দিনের মাথায় সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে আব্দুর রাজ্জাককে বালিশচাপা দিয়ে শাপলা খাতুন হত্যা করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে বাগমারা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ শাপলা খাতুনকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

 

রফিকুল ইসলাম জানান, ধুমধাম করে ছেলে আব্দুর রাজ্জাককে শাপলার সঙ্গে বিয়ে দেন তিনি। বিয়ের পর ছেলে ও পুত্রবধূর মধ্যে কোনো ঝগড়া-বিবাদ কিংবা মান-অভিমান লক্ষ্য করেননি। হঠাৎ এই ঘটনার কারণ বুঝতে পারছেন না এজাহারের বরাত দিয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই সুব্রত কুমার দাস জানান, ঘটনার রাতে খাবার শেষে স্বামী-স্ত্রী ঘুমানোর জন্য ঘরের দরজা বন্ধ করেন। পরিবারের অন্য সদস্যরা তখন ঘুমিয়ে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে হঠাৎ শব্দ পেয়ে বাবা রফিকুল ইসলামের ঘুম ভেঙে যায়।তিনি ছেলে আব্দুর রাজ্জাকের ঘরের দরজায় করা নাড়তে থাকেন। ভেতর থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে জোরে জোরে দরজায় ধাক্কা দিতে থাকেন। একসময় শাপলা দরজা খুলে দিলে তিনি তার ছেলের লাশ বিছানায় পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার শুরু করেন।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, একমাত্র আসামি শাপলা খাতুনকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments Box

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ ©  নলডাঙ্গা বার্তা

 
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park